কারবারের প্রকৃতি ও উদ্দেশ্য Nature and Purpose of Business

কারবারের প্রকৃতি ও উদ্দেশ্য Nature and Purpose of Business

 

ভূমিকা (Introduction) 

মানুষের অভাব অসীম কিন্তু অর্থনৈতিক সম্পদ সীমিত। অসীম অভাব পূরণের জন্য সীমিত অর্থনৈতিক সম্পদের উপযুক্ত ব্যবহারের লক্ষ্যে মানুষ নিরবচ্ছিন্ন অর্থনৈতিক কার্যকলাপ সম্পাদন করে চলেছে। এ প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, সব কারবারি কার্যকলাপ অর্থনৈতিক হলেও, সব অর্থনৈতিক কার্যকলাপ কারবারি
কার্যকলাপ নাও হতে পারে। (All business activities are economic activities but all economic
activities may not be business activities) 

 

 

Purpose of Business

 

আধুনিক কালে জ্ঞান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নতির ফলে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা, রুচি, পছন্দ ও আচরণের
পরিবর্তন ঘটেছে। একদিকে যেমন ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে দূরত্ব দূর করার জন্য স্থানগত বাধা, অর্থগত বাধা, ঝুঁকিগত বাধা, সময়গত বাধা ও তথ্যগত বাধা দূর করতে সচেষ্ট হতে হচ্ছে অন্যদিকে পৃথিবীটা মাউস ক্লিক-এর মাধ্যমে হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। বাজার ক্রমশ বিস্তৃত হচ্ছে। সাম্প্রতিক কালে টি সি এস (TCS or Tata Consultancy Services)-এর বিজ্ঞাপনী ভাষায় (Adv. Language) দেখা গেছে, 'World has become smaller and market has become bigger')
 

কারবার, ব্যাবসা ও বাণিজ্যের পরিধি জাতীয় স্তর অতিক্রম করে আন্তর্জাতিক হয়েছে। কারবার থেকে
ই-কারবার, ব্যাবসা থেকে ই-ব্যাবসা ও বাণিজ্য থেকে ই-বাণিজ্যের সূত্রপাত ঘটেছে।
অর্থনীতিতে শিল্পের কাজ হল প্রকৃতি থেকে সম্পদ সংগ্রহ করে সমাজের চাহিদা অনুসারে উপযোগ সৃষ্টি করা।
ব্যাবসার কাজ উৎপাদিত পণ্য বা সেবা ক্রয়-বিক্রয়ের মাধ্যমে ভোগকারীর কাছে পৌঁছে দেওয়া।
বাণিজ্যের কাজ বিভিন্ন রকমের বাধা দূর করে উৎপাদন ও ক্রয়-বিক্রয়ের মধ্যে সমন্বয় গড়ে তোলা। শিল্প,
ব্যাবসা ও বাণিজ্য পরস্পর সম্পর্কযুক্ত।

 


কারবারের প্রকৃতি ও বৈশিষ্ট্য (Nature and Purpose of Business)

কারবারের উৎপত্তি সভ্যতার মুলধারার মধ্যে নিহিত। অনিশ্চিত ও অনিয়মিত খাদ্য সরবরাহকে সুনিশ্চিত
করতে যাযাবর মানুষ সংঘবদ্ধভাবে বসবাস শুরু করে। পশুপাখি শিকারের পর্যায়ে উদ্বৃত্ত সৃষ্টি সম্ভবপর ছিল না। সভ্যতার বিকাশের পর্যায়ে গুহাবাসী মানুষ পশুশিকার শুরু করে। পশুশিকার থেকে পশুপালন, পশুপালন থেকে কৃষিকাজ এবং কৃষিকাজ থেকে শিল্প উৎপাদনে সভ্যতার বিবর্তনের ধারা অব্যাহত থাকে। কারবারের উদ্ভব হয় সামাজিক নির্ভরশীলতা থেকে এবং উদ্বৃত্ত সৃষ্টির মাধ্যমে। পণ্যের সঙ্গে পণ্যের বিনিময় প্রথার (Barter System) মাধ্যমে উদৃবৃত্ত পণ্যের বিনিময়ের সুযোগ আসে। 

 

 

Nature and Purpose of Business

 

উদাহরণঃ চালের পরিবর্তে বস্ত্র, মাছের পরিবর্তে চাল, চালের পরিবর্তে দুধ প্রভৃতি। পরবর্তী পর্যায়ে মুদ্রা বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। J.H.S. Bashard and J.F. Dewharst-এর মতে, মরুভূমির বুকে পথপ্রদর্শক হিসেবে, অন্ধকার সমাজে শিক্ষা ও সংস্কৃতির উজ্জ্বল মশাল হাতে এবং শান্তির দূত হিসেবে কারবার এগিয়ে এসেছিল (Business is a path-finder in the wilderness, a torch-bearer of culture, a herald of peace.)। শিক্ষা ও সংস্কৃতির বিকাশের সঙ্গে সঙ্গে কারবারের বিকাশ ঘটে। কারবারের অর্থ (Meaning of Business) ইংরেজি শব্দ 'Business' শব্দের বাংলা আভিধানিক অর্থ হল 'কারবার'। Business শব্দের আভিধানিক অর্থ হল ‘কোনো কিছু নিয়ে ব্যস্ত থাকার অবস্থা’ (State of being busy with anything)। 

ফরাসি শব্দ ‘কারোবার’ থেকে ‘কারবার’ শব্দটি সৃষ্টি হয়েছে। যার অর্থ হল ‘উদ্দেশ্যমূলক কাজ। অর্থনৈতিক কাজের মাধ্যমে অনিশ্চয়তা ও ঝুঁকি দূর করে মুনাফা অর্জনই হল কারবার। আকস্মিকভাবে পণ্য বিক্রয় বা সেবা প্রদান কারবার নয়। কারবার কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়।
 

এম. সি. শুক্লা (M.C. Shukla)-র মতে, কারবার মানুষের সেইসব কার্যকলাপ যা পণ্য উৎপাদন বা ক্রয়-বিক্রয় সংক্রান্ত কাজে যুক্ত থাকে এবং তা মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যে বিক্রি করে। উদাহরণ : নিজের প্রয়োজনে পুরোনো গাড়ি বিক্রি করে লাভ করাকে কারবার বলে না। তবে এই কাজ বারবার করলে তাকে কারবার বলা হবে। কারবারের সংজ্ঞার দুটি দিক-