কারবারের প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক সংজ্ঞা

কারবারের প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক সংজ্ঞা (Enterprise Based Definition)

Enterprise Based Definition

 

পিটার এফ. ড্রাকার (Peter F. Drucker)-এর মতে, যে প্রতিষ্ঠান পণ্য বা সেবা বিপণনের মাধ্যমে পূর্ণতা লাভ করে তাকে কারবার বলে (Any organisation that fulfils itself through marketing a product or service is a business.)। অধ্যাপক আর. এন. ওয়েন (Prof. R. N. Owens)- এর মতে, যে প্রতিষ্ঠান বাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে পণ্য উৎপাদন ও বিপণনে লিপ্ত থাকে অথবা মূল্যের বিনিময়ে সেবা প্রদান করে তাকে কারবার বলে (Business is any enterprise engaged in the production and distribution of goods for sale in market or the rendering services for a price.) I কারবার পণ্য উৎপাদন বা সেবা প্রদান করে এবং সমাজের অন্যরা প্রয়োজনমতো দাম দিয়ে কিনে নিতে সম্মত ও সক্ষম হয়।


কারবারের ক্রিয়াভিত্তিক সংজ্ঞা (Functional Based Definition )


পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (West Bengal Higher Secondary Council) কারবারের
ক্রিয়াগত সংজ্ঞা প্রসঙ্গে বলেছে, “পুনঃপুন বিনিময়ের মাধ্যমে সমাজের মানুষের অভাব মেটানোর উদ্দেশ্যে
উপযোগ সৃষ্টির কার্যকলাপই হল কারবার” (“Any activity directed to create values for removing
wants of man in society through recurring exchange.")। এল. এইচ. হ্যানে (L. H. Haney)-এর
মতে, সম্পদ উৎপাদন এবং ক্রয়বিক্রয়ের মাধ্যমে সম্পদ অর্জনের জন্য মানুষের সংগঠিত কর্মপ্রচেষ্টাই হল
কারবার (“Business may be defined as a humann activity directed towards producing or
acquiring wealth through buying and selling of goods.")| বারংবার বিনিময়ের মাধ্যমে সমাজের মানুষের অভাব মোচনের উদ্দেশ্যে সংগঠিত অর্থনৈতিক কার্যকলাপ হল কারবার।

 
কারবারের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান ( Important Elements of Business)
 

(i)অভাব মোচন (Satisfying Want), (ii)উপযোগ সৃষ্টি (Creation of Utility), (iii)পুনঃপুন বিক্রয়
(Recurring Exchange), (iv)কার্যকলাপ (Activity)
 

অভাব মোচন (Satisfying want) : পণ্য বা সেবা উৎপাদন ও বণ্টনের মাধ্যমে মানুষের অভাব
মোচন করে মুনাফা অর্জন কারবারের কাজ।


উপযোগ সৃষ্টি (Creation of Utility) : পণ্য উৎপাদন বা সেবা প্রদানের মাধ্যমে উপযোগিতা সৃষ্টি
কারবারের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য।


● পুনঃপুন ৰিনিময় (Recurring Exchange ) : পুনঃপুন বিনিময় হল কারবারের বৈশিষ্ট্য।


● কার্যকলাপ (Activity) : বারবার পণ্য উৎপাদন বা সেবা প্রদান সংক্রান্ত কার্যকলাপ কারবারের অন্যতম
উদ্দেশ্য।


কারবার শুধু পণ্য উৎপাদন বা সেবা প্রদান করে ক্ষান্ত হয় না, প্রয়োজনে সম্পদের রূপান্তর ঘটায় এবং
ব্যবহারোপযোগী করে তোলে। চাহিদা অনুসারে পণ্য বা সেবা বিক্রির ব্যবস্থা করে। কারবার পণ্যের সময়গত
স্থানগত, অর্থগত, ঝুঁকিগত, তথ্যগত এবং বিনিময় সংক্রান্ত বাধা দূর করে উৎপাদিত পণ্য বা সেবা বিনিময়ের মাধ্যমে বিক্রেতার কাছ থেকে বিক্রেতার কাছে হস্তান্তর করে। এই প্রক্রিয়া নিরবচ্ছিন্নভাবে করে চলে। এই কাজ বাণিজ্যের মাধ্যমে সম্ভব। 

 

 

Enterprise Definition

প্রতিষ্ঠানগত বৈশিষ্ট্য (Enterprise Based Features)


উদ্যোক্তা (Entrepreneur) : 

উদ্যোক্তা (Entrepreneur) শব্দটি ফরাসি শব্দ 'Entreprenere' শব্দ থেকে এসেছে। ফরাসি অর্থনীতিবিদ রিচার্ড ক্যানটিলন (Richard Cantillon) 1755 খ্রিস্টাব্দে তাঁর প্রকাশিত বইয়ে উদ্যোক্তার ধারণা প্রথম ব্যক্ত করেন। অ্যাডাম স্মিথ (Adam Smith) 1776 খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত তাঁর বিখ্যাত বই 'Wealth of Nation'-এ ঝুঁকি বহন (Risk bearing) উদ্যোক্তার কাজ হিসেবে গণ্য করেছেন। অধ্যাপক আলফ্রেড মার্শাল (Prof. Alfred Marshall) ব্যবস্থাপনাকে (Management) উদ্যোক্তার কাজ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। অধ্যাপক স্যুম্পিটার (Prof. Schumpeter) নতুনের প্রবর্তনকে (Innovation) উদ্যোক্তার কাজ হিসেবে গণ্য করেছেন। মার্শালের মতে, শিল্পের নাবিক হল উদ্যোক্তা (Entrepreneur is the Captain of Industry.)। 

উদ্যোক্তা হল এমন একজন ব্যক্তি যিনি উপযুক্ত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ঝুঁকি গ্রহণ করে নতুন কারবারের প্রবর্তন করেন। উদাহরণ : সরকারি উদ্যোগে সেইল (SAIL) এবং বেসরকারি উদ্যোগে টাটা স্টিল (Tata Steel) গড়ে উঠেছে। 

 

ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তা ( Risk and Uncertainty) : 

ঝুঁকি গ্রহণ কারবারের একটি মূলগত বৈশিষ্ট্য। ক্লার্ক ও ক্লার্ক (Clark and Clark) কারবারের তিন ধরনের ঝুঁকির কথা বলেছেন- (a) অর্থনৈতিক ঝুঁকি (Economic Risk), (b) প্রাকৃতিক ঝুঁকি (Physical Risk) এবং (c) মানবিক ঝুঁকি (Human Risk)। অধ্যাপক নাইট (Prof. Knight)-এর মতে ঝুঁকি দুই প্রকার– (a) বিমাযোগ্য (Insurable) এবং (b) অবিমাযোগ্য (Non-insurable)। অবিমাযোগ্য ঝুঁকিকেই অনিশ্চয়তা বলে।


মূলধন (Capital) : 

মূলধন কারবারের চালিকাশক্তি। কারবারে মূলধনের প্রবেশের মধ্যে দিয়ে প্রাণের স্পন্দন জাগে। কারবারে তিন ধরনের মূলধন প্রয়োজন— স্থায়ী মূলধন (Fixed Capital), চলতি মূলধন Fluctuating Capital) এবং কার্যকরী মূলধন (Working Capital)। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি উড্রো উইলসন (Woodrow Wilson)-এর মতে, অর্থ (মূলধন) হল কারবারের মেরুদণ্ড।

 

সংগঠন (Organization) : 

সংগঠন কারবারের মূলগত বৈশিষ্ট্য। নির্দিষ্ট লক্ষ্য পূরণের জন্য ভিন্ন ভিন্ন কিন্তু সম্পর্কযুক্ত বিভিন্ন বিভাগের সমন্বয়কে সংগঠন বলে। চেস্টার আই. বানার্ড (Chester I. Barnard)-এর মতে, দুই বা ততোধিক ব্যক্তির সহযোগিতামূলক কাজের পদ্ধতিকেই সংগঠন বলে। পিটার এফ. ড্রাকার (Peter F. Drucker)-এর মতে, কারবারের ভিত্তি হল সঠিক সংগঠন। সংগঠন যদি ত্রুটিমুক্ত না হয় তাহলে পরিচালনা যতই ভালো হোক না কেন তা শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হতে বাধ্য।
 

নীতি নির্ধারণ (Policy Making) : 

নীতি নির্ধারণ কারবারের অন্যতম কাজ। কারবারের লক্ষ্য (Goal or objective)-এর সঙ্গে নীতি সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে। এডউইন বি. ফ্লিপো (Edwin B. Flippo)-এর মতে, নীতি হল মানুষের রচিত নিয়মাবলি যা সংগঠনের উদ্দেশ্য অনুযায়ী কাজকে ফলবর্তী করতে পথপ্রদর্শক হিসেবে কাজ করে।

 

পূর্বানুমান (Forecasting) : 

ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত কিন্তু কারবার সঠিকভাবে পরিচালনা করতে পূর্বানুমান অত্যন্ত জরুরি। অতীত ও বর্তমানের ওপর ভিত্তি করে ভবিষ্যৎ সম্ভাব্য ঘটনার বিজ্ঞানসম্মত অনুমানকে পূর্বানুমান বলে। প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনার জনক হেনরি ফেয়ল (Henry Fayol) -এর মতে, পূর্বানুমান পূর্বানুমানের ওপর ভিত্তি করে ইনফোসিস (Infosys) তৈরি করে। পূর্বানুমান ছিল, ভবিষ্যতে সেবা শিল্পের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। এই ধারণার ওপর ভিত্তি করে 1981 খ্রিস্টাব্দে নারায়ণমূর্তি স্ত্রীর কাছ থেকে 10,000 টাকা ধার করে ইনফোসিস তৈরি করেছিলেন।